লকডাউনে কাজ হারাতে পারেন বৃদ্ধ এই শিল্পী, সংসার চালানোয় এখন তার পক্ষে বড় দায়

লকডাউনে কাজ হারাতে পারেন বৃদ্ধ এই শিল্পী, সংসার চালানোয় এখন তার পক্ষে বড় দায়

বর্তমানে সারা বিশ্ব আজ প্রকাণ্ড মহামারী করোনার‌ কবলে। দিনের-পর-দিন আক্রান্ত এবং মৃত সংখ্যা বেড়েই চলেছে। মিলছেনা অক্সিজেনের যোগান। সংকট দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের বেডে। পাওয়া যাচ্ছেনা প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী। বর্তমান পরিস্থিতি আগের বছরের তুলনায় অনেক বেশি ভয়াবহ।

বারংবার সরকারের তরফ থেকে লকডাউন ঘোষণা করা হচ্ছে জনগণের স্বার্থে। মাক্স পড়ার এবং দূরত্ব মেনে চলার কথা বলা হচ্ছে স্থানীয় প্রশাসনের তরফ থেকে। দুটি করে মাক্স ব্যবহার করতে বলা হচ্ছে চিকিৎসকদের তরফ থেকে। এতকিছুর পরেও মানুষের মধ্যে সচেতনতা খুবই কম আগের বারের তুলনায়।

বর্তমানে লকডাউনের ফলে সমস্ত মানুষই আজ বাড়িতে বন্দি। কাজকর্ম না থাকায় অনেক পরিবারের অবস্থা খুবই শোচনীয়। সরকারের পক্ষ থেকে খাদ্যের সাহায্য করার পরেও দেখা যায় নানান ধরনের প্রয়োজনীয় জিনিসের সংকট। এরই মাঝে দিন আনা দিন খাওয়া মানুষগুলো পড়েছেন সবচেয়ে বেশি সমস্যায়। এমনই একটি বৃদ্ধ শিল্পীর কথা ভাইরাল হলো সোশ্যাল মিডিয়াতে।

70 বছর বয়সি এই বৃদ্ধ শিল্পী বেশ কয়েক বছর ধরেই কলকাতার গোলপার্কের অ্যাক্সিস ব্যাংকের শাখার নিচে নিজের শিল্প রচনা করছেন। তার শিল্প ভারতের বাইরে দেশ-বিদেশের নানা জায়গায় ছড়িয়ে আছে। নিজের আঁকা ছবি সর্বনিম্ন 50 থেকে সর্বোচ্চ 150 টাকায় বিক্রি করে সংসার চালান তিনি। কখনো এমন মানুষ গুলির সাথে দেখা হলে ঘর সাজানোর জন্য দুটি ছবি যদি আপনি ওনার কাছ থেকে নেন তাহলে তাদের খুব সুবিধা হয়। একটি মানুষের উচিত অপন মানুষকে সাহায্য করা।