আবহাওয়া দপ্তরের কড়া সতর্কবাতা, প্রবল বেগে ছুটে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাউকটে’

আবহাওয়া দপ্তরের কড়া সতর্কবাতা, প্রবল বেগে ছুটে আসছে ঘূর্ণিঝড় 'তাউকটে'


গোটা পৃথিবী আজ করোনা ভাইরাসের কবলে। এরই মাঝে প্রবল বেগে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘তাউকতাই’। আগামী 16 ই মে কেরল, কর্ণাটক, গোয়া, মহারাষ্ট্র এবং তামিলনাড়ুতে আছড়ে পড়তে চলেছে এই ঘূর্ণিঝড়; এমনই জানানো হয়েছে দিল্লির মৌসম ভবনের তরফ থেকে। এছাড়াও মৌসম ভবন এর তরফ থেকে জানানো হচ্ছে যে ঘূর্ণিঝড়ের পাশাপাশি দক্ষিণের লাক্ষাদ্বীপ সহ রাজ্যগুলিতে আগামী কিছুদিন ধরে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

আরো পড়ুন -  কালো বিকিনিতে 'Super Hot' সেক্সি মাম্মা শুভশ্রী, মালদ্বীপ থেকে উষ্ণতার ঝড় তুললেন অভিনেত্রী

চলতি মরসুমের এটি প্রথম ঘূর্ণিঝড়। মায়ানামার এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম দিয়েছে ‘তাউকতাই’। মৌসম ভবন এর তরফ থেকে অনুমান করা হয়েছে যে আগামী 14 ই মে দক্ষিণ-পূর্ব আরব সাগরে এই ঘূর্ণিঝড় টি তৈরি হবে। ধীরে ধীরে নিজের শক্তি বৃদ্ধির সাথে সাথে 16 ই মে এটি ভূখণ্ডে প্রবেশ করবে।

আরো পড়ুন -  মাত্র কয়েক ঘন্টার মধ্যে এইসব জেলায় মুষলধারে বৃষ্টি, কড়া সতর্কতা বার্তা আবহাওয়া দপ্তরের

দিল্লির মৌসম ভবন এর তরফ থেকে সতর্কবার্তা জানানো হয়েছে দক্ষিণের সমস্ত রাজ্যগুলিকে। স্থানীয় প্রশাসন থেকে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে এবং উপকূলীয় এলাকার সমস্ত মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। যে সমস্ত মৎস্যজীবীরা সমুদ্রে চলে গিয়েছিলেন তাদের ফিরে আসার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আরো পড়ুন -  রাজ্যে জুড়ে দফায় দফায় বৃষ্টি, মাটি হতে পারে বাঙালীর প্রিয় উৎসব দূর্গাপুজোর আনন্দ!

পাশাপাশি মৌসম ভবন এর তরফ থেকে এমনও জানানো হয়েছে যে এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব বাংলায় খুব বেশী দেখা যাবে না। গত কয়েকদিন ধরে বৃষ্টিপাত এবং নিম্নচাপ দেখা গেলেও এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব বাংলায় পড়বে না।