নিজের ৭ মাসের শিশুকে রাস্তায় ফেলে পালানোর চেষ্টা বাবার, ঘটনায় চাঞ্চল্য এলাকায়

নিজের ৭ মাসের শিশুকে রাস্তায় ফেলে পালানোর চেষ্টা বাবার, ঘটনায় চাঞ্চল্য এলাকায়


কাঁকুড়গাছির বাসিন্দা অনির্বান মুখার্জী নামের এক ব্যক্তি বৃহস্পতিবার খবর পান যে তিনি করোনা আক্রান্ত। এরপর তার সাত মাসের শিশু পুত্রকে এলগিন রোড এর একটি জায়গায় ফেলে রেখে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন তিনি।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন এলগিন রোডে অনির্বাণ বাবুর সাথে ওই শিশুকে বসে থাকতে দেখা গিয়েছিল। প্রত্যেক পথযাত্রীকে তিনি অনুরোধ করছিলেন শিশুটিকে নিয়ে যাওয়ার জন্য। এমন কান্ড দেখে স্থানীয় বাসিন্দারা স্থানীয় কাউন্সিলর অসীম বাবুর সাথে যোগাযোগ করেন। সাথে খবর দেওয়া হয় ভবানীপুর থানায়।

আরো পড়ুন -  কেউ দ্বাদশ পাশ তো আবার কেউ ইঞ্জিনিয়ার, জেনে নিন ভারতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়দের শিক্ষাগত যোগ্যতা

অসীম বাবুর কাছ থেকে জানা যায় সকাল দশটা নাগাদ ওই ব্যক্তি এলগিন রোড এর ধারে আসেন এবং প্রত্যেককে জয়দীপ সেন নামে পরিচয় দিতে থাকেন। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন যে তিনি নিজেকে সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী বলে পরিচয় দিয়েছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন যে অনির্বাণ বাবু নিজে মাটিতে শুয়ে ছিলেন এবং তার পাশে বসে থাকতে দেখা গিয়েছে তার সাত মাসের শিশু পুত্রকে। উনার পরনে ছিল সাদা জামা এবং গলায় একটি সোনার চেন।

আরো পড়ুন -  কলকাতা সহ এই ১০ জেলায় ধেয়ে আসছে ব্যাপক বৃষ্টি, কড়া সতর্কতা জারি হাওয়া অফিসের

কাউন্সিলর অসীম বাবুর কাছ থেকে জানা গিয়েছে যে শিশুটি বর্তমানে তার মায়ের কাছে রয়েছে। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে যে অনির্বাণ বাবু করণা আক্রান্ত হবার ফলে নিজের মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে নিজের শিশু পুত্রকে অন্যের হাতে তুলে দিতে গিয়েছিলেন। অনির্বাণ বাবু একজন তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থায় চাকরি করতেন এবং একজন অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র ছিলেন। করোনা আক্রান্ত হবার ফলেই তিনি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে যে অনির্বাণ বাবু তার ছেলেকে নিয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যাবেলায় বেরিয়ে যান। রাত অব্দি বাড়ি না ফেরায় পুলিশের মিসিং ডায়েরি করেছেন পরিবারের সদস্যরা। এর পরেই তিনি নিজের সাতমাসের শিশু পুত্রকে রাস্তায় ফেলে রেখে পালিয়ে আসার চেষ্টা করেছেন।

আরো পড়ুন -  চরম দারিদ্রতায় মদ বিক্রি, পড়াশোনা শিখিয়ে ছেলেকে আইএএস অফিসার করলেন মা