লকডাউনে বাড়ি বসে একঘেয়ে খাবার খেয়ে বিরক্ত, রইল ডিম ও মসুর ডালের এক নতুন রেসিপি

লকডাউনে বাড়ি বসে একঘেয়ে খাবার খেয়ে বিরক্ত, রইল ডিম ও মসুর ডালের এক নতুন রেসিপি


খাদ্য রসিক বাঙালি। বাঙালি যেমন খেতে ভালবাসে ঠিক তেমনই অপরকে খাওয়াতেও ভালোবাসে। কিন্তু বর্তমানের লকডাউনের পরিস্থিতিতে বাড়ি বসে একই খাবার খেয়ে বিরক্ত হচ্ছেন সকলেই। তাই আজ আপনাদের জন্য এমন একটি খাবার নিয়ে এসেছি যা স্বাদে মাছ-মাংস কেও ছাড়িয়ে যাবে। এক নজরে দেখে নেব ডিম ও মসুর ডালের এই নতুন রেসিপি।

উপকরণ: এক কাপ মুসুর ডাল, তিনটি ডিম, পেঁয়াজ, রসুন, কাঁচা লঙ্কা, শুকনো লঙ্কা, আদা, তেজপাতা, এলাচ, দারুচিনি, জিরা গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো, কাশ্মীরি লঙ্কাগুঁড়ো, গরম মশলা গুঁড়ো, আলু, তেল।

আরো পড়ুন -  এই বর্ষায় একঘেয়ে পটলকে বানিয়ে ফেলুন চটকদার! রইল পটল ভর্তার রেসিপি

রান্নার পদ্ধতি: সর্বপ্রথম দু’ঘণ্টা ধরে ভিজিয়ে রাখা 1 কাপ মুসুর ডালকে ভালো করে মিক্সিতে পেস্ট করে নিয়ে তার মধ্যে তিনটি ডিম ভেঙে দিয়ে দিতে হবে। এরপর এই মিশ্রণে কুচো পেঁয়াজ, কাঁচা লঙ্কা কুচি, এক চামচ আদা রসুন বাটা, পরিমান মত হলুদ গুঁড়ো, গরম মসলা গুঁড়ো এবং স্বাদমতো নুন দিয়ে দেব। এরপর দুই চামচ তেল কড়াইয়ে দিয়ে হালকা তাতে এপিট ওপিট করে খুব সুন্দর করে মিশ্রণটিকে ভেজে নেবে। ভাজা হয়ে গেলে এটিকে পাশে রেখে দেবো ঠান্ডা করার জন্য।

আরো পড়ুন -  একঘেয়ে খাবার আর নয়, স্বাদ বদলাতে সকালের জলখাবারে বানিয়ে ফেলুন ডিমের স্যান্ডউইচ

এবার কড়াইয়ে 4 টেবিল চামচ তেল দিয়ে ডুমো ডুমো করে কাটা দুটি আলু, নুন ও হলুদ দিয়ে খুব সুন্দর করে ভেজে নিয়ে ওই তেলে দুটি তেজপাতা, একটি শুকনো লঙ্কা, একটি দারুচিনি, এলাচ ও এক চামচ ফোরন দিয়ে খুব সুন্দর করে ভেজে নেবে। ভালো করে ভাজা হয়ে গেলে তাতে দুটি মাঝারি সাইজের পেঁয়াজ কুচি, চার থেকে পাঁচ কোয়া রসুন বাটা, তিনটি লঙ্কার পেস্ট এবং হাফ টমেটো দিয়ে দেব।

আরো পড়ুন -  ভাতের সঙ্গে খাওয়ার জন্য তেল কই বানিয়ে ফেলুন, রইল রেসিপি

কিছুক্ষণ পর ভালো করে কষিয়ে নিয়ে হাফ চামচ করে লঙ্কাগুঁড়ো, ধনেগুঁড়ো, জিরেগুঁড়ো, চিনি, হলুদ এবং স্বাদমতো লবণ মিশিয়ে দেবে। মিনিট পাঁচেক ভালো করে কষানোর পর তাতে দুই কাপ গরম জল দিয়ে দেব। এরপর 10 মিনিট ঢেকে রাখার পর তাতে ডিম ও মসুর ডালের ভাজা মিশ্রণটি পিস পিস করে কেটে দিয়ে দেব। এবার 10 মিনিট ধাকা চাপা দিয়ে হালকা তাতে রেখে দিতে হবে। সবশেষে হাফ চামচ গরম মসলা দিয়ে নেড়ে দিলেই প্রস্তুত হয়ে যাবে খাবারটি।