Recipe: মাছের স্বাদ ও গুণ দুটোই বজায় থাকবে, রইল ট্যাংরা মাছের ঝাল তৈরির অন্য রেসিপি

Recipe: মাছের স্বাদ ও গুণ দুটোই বজায় থাকবে, রইল ট্যাংরা মাছের ঝাল তৈরির অন্য রেসিপি

আম-বাঙালির মাছ ছাড়া একটা দিনও চলে না। এদিকে রোজ একই রান্না খেতে খেতে বাড়ির সবাই বিরক্ত হয়ে যায়। চেনা রান্নাকেই যদি একটু অন্যরকমভাবে বানিয়ে খাওয়া যায়, তাহলে কেমন হয়! ব্যাপারটা ভালো তাই না! চলুন বানিয়ে ফেলি ট্যাংরা মাছের একটি দারুণ স্বাস্থ্যকর রেসিপি। এমনিতেই ট্যাংরা মাছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-ডি আছে যা হাড়ের জন্যে খুবই উপকারী। তবে, অনেকেরই ট্যাংরা মাছে অ্যালার্জি আছে, তারা অবশ্যই এই মাছটিকে এড়িয়ে চলুন। আসুন ট্যাংরা মাছের ঝাল তৈরি করতে কি কি প্রয়োজন একটু দেখে নিই।

উপকরণ: ট্যাংরা মাছ, লবণ- স্বাদমতো, পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা, রসুন বাটা, লঙ্কার গুঁড়ো, হলুদ গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো, জিরে গুঁড়ো, শুকনো লঙ্কা, তেজপাতা, চিনি- সামান্য পরিমাণে, সর্ষের তেল, তেজপাতা, লবঙ্গ, গোলমরিচ, এলাচ, দারুচিনি, টমেটো- ছোটো টুকরো করে রাখা, কাঁচালঙ্কা- মাঝখান থেকে চিরে রাখা।

প্রণালী: শুরুতেই ট্যাংরা মাছগুলোকে ভালোকরে ধুয়ে নিন। এবার একটি পাত্রে মাছগুলোতে স্বাদমতো লবণ ও হলুদ গুঁড়ো মাখিয়ে নিন।

এরপর কড়াইতে পরিমাণ মতো সর্ষের তেল দিয়ে তেলটাকে গরম হতে দিন। তেল গরম হয়ে এলে ওই গরম তেলের মধ্যে ট্যাংরা মাছগুলিকে আস্তে আস্তে দিয়ে দিন। মাছগুলোকে ভালো করে ভেজে নিন। মাছগুলো ভালো করে ভাজা হয়ে গেলে সেগুলিকে একটা পাত্রে তুলে নিন।

এবার কড়াইতে ওই গরম তেলের মধ্যেই একে একে পেঁয়াজ বাটা, আদা বাটা, রসুন বাটা, তেজপাতা, লবঙ্গ, দারুচিনি, এলাচ, গোলমরিচ, টমেটো, শুকনো লঙ্কা, হলুদ গুঁড়ো, জিরে গুঁড়ো, ধনে গুঁড়ো, সামান্য চিনি দিয়ে নিন। ভালোভাবে মশলাগুলোকে কষিয়ে নিন। মশলাটা ভালো করে কষানো হয়ে গেলে তার মধ্যে পলিমাণমতো জল দিন। তারপর আগে থেকে ভেজে রাখা ট্যাংরা মাছগুলোকে ওর মধ্যে দিয়ে দিন। এরপর কাঁচালঙ্কা ও পরিমাণ মতো লঙ্কার গুঁড়ো দিয়ে ১০-১৫ মিনিটের জন্যে রান্নাটা হতে দিন। তবে, মাঝে মাছগুলোকে আস্তে করে এপিঠ ওপিঠ করে উল্টে দিন।

গ্রেভিটা একটু মাখো মাখো হয়ে এলে রান্নাটিকে একটি পাত্রে নামিয়ে নিন। গরম ভাতের সাথে পরিবেলন করুন ট্যাংরা মাছের ঝাল। খেয়েও শান্তি, খাইয়েও শান্তি।