Saif Ali Khan: ৫০০০ কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক হয়েও এই কারণের জন্য সন্তানদের কিছুই দিতে পারবেন না সইফ!

Saif Ali Khan: ৫০০০ কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক হয়েও এই কারণের জন্য সন্তানদের কিছুই দিতে পারবেন না সইফ!

পটোডি নবাব সইফ আলি খান (Saif Ali Khan)বর্তমানে চার সন্তানের বাবা। পঞ্চাশ বছরে পদার্পণ করে চতুর্থ সন্তানের বাবা হয়েছেন তিনি। কিন্তু বয়স পঞ্চাস হলে কি হবে, বয়স ও জৌলুসে এতোটুকুও ভাটা পড়েনি। পদবী যেমন খান, তেমনই পৈতৃক সম্পত্তিও আছে। সূত্র মারফত জানা যায়, হরিয়ানার পটৌডি প্যালেস ও ভোপালের পৈতৃক সম্পত্তি মিলিয়ে ছোটো নবাব বর্তমানে ৫০০০ কোটি টাকার মালিক। তার পাশাপাশি তিনি অভিনেতা হওয়ায় ছবি ও বিজ্ঞাপন থেকেও কয়েকশো কোটি টাকা রোজগার করেন।

কিন্তু সমস্যাটা অন্য জায়গায়। ৫০০০ কোটি টাকার সম্পদের মালিক হওয়া সত্ত্বেও সইফ তার সন্তানদের এই পৈতৃক সম্পত্তির একটা কানাকড়িও দিতে পারবেন না। তার অবশ্য একটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ আছে। ছোটো নবাবের পূর্বপুরুষের এই সুবিশাল সম্পত্তি ভারত সরকারের শত্রু বিরোধী আইনের আওতাধীন।

ভারত সরকারের শত্রু বিরোধী আইন অনুযায়ী কোনও ব্যাক্তি উক্ত সম্পত্তিকে নিজের বলে দাবি করতে পারবেন না। এমনকি কোনও ব্যক্তি যদি এই আইনের বিরোধিতা করে নিজের সম্পত্তি বলে মালিকানা দাবি করে তাহলে তাকে হাইকোর্টের দ্বারস্হ হতে হবে। হাইকোর্টে এই সমস্যার সমাধান না মিললে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে হবে ওই ব্যক্তিকে। সুপ্রিম কোর্টে গিয়েও যদি সুরাহা না হয়, তাহলে একমাত্র ভারতের রাষ্ট্রপতিই এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন – আর কেউ নয়।

এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন যে, সইফ আলি খানের প্রপিতামহ হামিদুল্লাহ খান ব্রিটিশ শাসনকালে তৎকালীন নবাব থাকাকালীন তার সম্পত্তির কোনও উইল করে যাননি। আর এই কারণেই নবাব পরিবারে পারিবারিক অশান্তি রয়েছে। আর এই কারণেই ছোটো নবাব সইফ আলি খান তার পৈতৃক সম্পত্তির বিন্দুমাত্র অংশও তার সন্তানদের দিতে পারবেন না।