Aryan Khan Case: অনন্যা কি গাঁজার ব্যবসা করতেন? ফাঁস আরিয়ান-অনন্যার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট, দেখুন

Aryan Khan Case: অনন্যা কি গাঁজার ব্যবসা করতেন? ফাঁস আরিয়ান-অনন্যার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট, দেখুন

মাদক কান্ডে মোড় ঘুরছেই। একটার পর একটা ক্লাইম্যাক্স আরও ভাবিয়ে তুলছে এনসিবি-র (NCB) আধিকারিকদের। এই জালে ঠিক কতোজন জড়িয়ে আছে তা নিয়ে চুল চেরা বিশ্লেষণ করছে এনসিবি। আরিয়ান খানের (Aryan Khan) সঙ্গে অনন্যা পান্ডের (Ananya Panday) হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট (Whatsapp Chat) আরও ধোঁয়াশা তৈরি করছে।

আরিয়ান খানের মাদক কান্ডে অনেক আগেই জড়িয়ে পড়েছিলেন চাঙ্কি কন্যা অনন্যা পান্ডে। এই দুই স্টারকিডের কথোপকথনও বেশ সন্দেহজনক। তাই এই বিষয়ে তদন্ত চালানোর জন্যে নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো আগেই সমন পাঠিয়েছিল অনন্যার কাছে। অনন্যাকে জিজ্ঞাসাবাদ করায় তিনি সবকিছুকেই মজা বলে উড়িয়ে দিয়েছেন আগেই।

এখনও পর্যন্ত তদন্তের ভিত্তিতে যা উঠে আসছে, তা থেকে এনসিবি ধারণা করছে যে, অনন্যা একজন ছোটোখাটো মাদক ব্যবসায়ী। এনসিবির হাতে আসা ২০১৯ সালের জুলাই মাসের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটে আরিয়ান ও অনন্যার যা কথোপকথন হয়েছিল তা রীতিমতো চাঞ্চল্যকর একটি তথ্যকে তুলে ধরছে। তার সাদে ওই চ্যাটে এনসিবি-কে নিয়ে রসিকতাও করেছিলেন ওই দুই তারকা সন্তান। ওই চ্যাটে অনন্যার কাছ থেকে গাঁজা চেয়েছিলেন আরিয়ান। তার সাথে আরিয়ান বলেছিলেন, “কোকেন নিলে এনসিবি ধরবে”।

চ্যাটে অনন্যা এবং আরিয়ান বলেছিলেন:
আরিয়ান: গাঁজা লাগবে।
অনন্যা: এখন প্রচুর চাহিদা।
আরিয়ান: আমি তোমার থেকে গোপনে নিয়ে নেব।
অনন্যা: বেশ।
অনন্যা: এখন ব্যবসায় ঢুকে পড়েছি।
আরিয়ান: গাঁজা এনেছ?
অনন্যা: ব্যাবস্হা করছি।

এখানেই শেষ নয়। আরিয়ান ও অনন্যা ছাড়াও এই মাদক মামলার জালে জড়িয়ে পড়েছে আরও তিনজন স্টারকিড। তাদেরকেও খূব তাড়াতাড়ি সমন পাঠানো হবে বলে জানা যাচ্ছে। তবে, তারা কারা এ ব্যাপারে খোলসা করে এখনও কিছু জানায়নি এনসিবি। এনসিবি আধিকারিকরা মনে করছেন, বলিউডের অনেক তারকাই মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত।