ভবিষ্যতে বদলে যাবে সম্পর্কের সমীকরণ, ‘টেস বুড়ি’ হতে পারেন মোদক বাড়ির বড়-বৌ!

ভবিষ্যতে বদলে যাবে সম্পর্কের সমীকরণ, ‘টেস বুড়ি’ হতে পারেন মোদক বাড়ির বড়-বৌ!

অবশেষে অনেক বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে মিঠাই ও সিদ্ধার্থের বিয়ে হতে যাচ্ছে। প্রথমে অনিচ্ছা সত্ত্বেও মোদক বাড়ির সম্মান রক্ষার্থে মিঠাই ও সিদ্ধার্থের বিয়ে হলেও পরবর্তীকালে দুজন দুজনকে ভালোবেসে ফেলে। ফলে তাদের আবারও নতুন করে বিয়ে হচ্ছে। গোটা সপ্তাহ জুড়ে দেখানো হচ্ছে মিঠাই ও সিদ্ধার্থের বিয়ের পর্ব। কিন্তু এই সব দেখে হতবাক তোর্সা।

একসময় বিয়ে নামক প্রতিষ্ঠানকে মানে না বলে তোর্সাকে ফিরিয়ে দিয়েছিল সিদ্ধার্থ। অথচ আজ মিঠাই ও সিদ্ধার্থের বিয়ে হতে দেখে মেনে নিতে পারছে না সে। তার কান্না দেখে বিচলিত হয়ে পড়ে সোম। তোর্সার জন্য সোমের এই ভাবনা লক্ষ্য করেছে মোদক পরিবারের সদস্যরা। বাড়ির জামাই সরাসরি সোমকে প্রশ্ন করে, তোর্সার জন্য তার এত চিন্তা কেন হচ্ছে! এরপরেই নেটিজেনদের একাংশ তোর্সার পাত্র হিসাবে পছন্দ করে ফেলেছেন সোমকে। তাঁদের মতে, সোম হল তোর্সার আদর্শ পাত্র।

কিন্তু তোর্সা সবসময়ই মনের মধ্যে জটিলতা ধারণ করে। ফলে সোমের সঙ্গে তার বিয়ে হয়তো মোদক পরিবারের জন্য অশুভ ইঙ্গিত বহন করে আনবে। প্রতিশোধ পরায়ণ তোর্সা যদি সোমকে বিয়ে করে বাড়ির বড় বৌ হয়ে যায়, তাহলে মিঠাই ও সিদ্ধার্থের সম্পর্কে ভাঙন ধরানো তার পক্ষে সহজ হবে। ঘটনার মোড় দেখে মনে হচ্ছে, ভবিষ্যতে বদলে যাবে সম্পর্কের সমীকরণ।

অপরদিকে মিঠাই ও সিদ্ধার্থের বিয়ের দিন তোর্সার আচরণ দেখে বাস্তবিক অবাক সিদ্ধার্থ নিজে। এদিন তার পরনে রয়েছে নীল পাড় সাদা শাড়ি। সিদ্ধার্থ-মিঠাইয়ের বিয়ের বরমাল‍্যের থালা এদিন ধরেছিল তোর্সা। নন্দা তো আগেই ভাইকে সতর্ক করেছে যে, ‘টেস বুড়ি’-র দিকে তাকালে কান ছিঁড়ে নেবে। এর মধ্যেই বিয়েতে বাগড়া দিতে চলেছেন এসেছে সমরেশ। কিন্তু সিদ্ধার্থ তাঁকে পরামর্শ দিয়েছে, কোথাও গিয়ে একটু বিশ্রাম নেওয়ার। কারণ এই বিয়ে সে মন থেকে করছে। মিঠাই-এর আগমনে এবার কি ঘটতে চলেছে মোদক পরিবারে , তা দেখার জন্য চোখ রাখতে হবে ‘মিঠাই’-এর পরবর্তী পর্বগুলিতে।