শরীরে বাড়তি মেদের জন্য ট্রোলড হলেন ঋতাভরী! বডি শেমিং-এর উপযুক্ত জবাব দিলেন অভিনেত্রী

শরীরে বাড়তি মেদের জন্য ট্রোলড হলেন ঋতাভরী! বডি শেমিং-এর উপযুক্ত জবাব দিলেন অভিনেত্রী


টলিউডের মিষ্টি অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী। বরাবর তাকে স্লিম ট্রিম ফিগারেই দেখে এসেছেন নেটিজেন। কিন্তু সম্প্রতি এক বিজ্ঞাপনের জন্য শুট করতেই ঋতাভরী কে দেখে চক্ষু চড়কগাছ নেটিজেনের। শরীরে জমেছে মেদ,থলথলে চেহারা দেখে মানতে পারেননি তার অনুরাগীরা।

সেই ওগো বধূ সুন্দরী ধারাবাহিকের ললিতা,দেখতে দেখতে এখন অনেকটা পরিণত হয়েছে সে। এখন বলি জগতেও দাপিয়ে অভিনয় করছেন ঋতাভরী। বিখ্যাত পরিচালক উৎপলেন্দু চক্রবর্তী বা লেখিকা শতরূপা সান্যালের মেয়ে বলে নয় সম্পূর্ণ নিজের প্রতিভায় প্রতিষ্ঠা পেয়েছেন ঋতা।

ঋতাভরী আমেরিকার একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অভিনয়ে স্নাতক হয়েছেন। জয় করেছেন প্রথম স্থান। সব সাফল্যের মাঝেই আট মাসে দুটো অপারেশন। রীতিমত কাহিল করে দিয়েছে অভিনেত্রীকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পছন্দের অভিনেত্রী কে একটু মোটা চেহারায় দেখে অনেকেই তার তারিফ করেছেন। রোগা মোটা সব রূপেই তিনি অসামান্য এমন মন্তব্যও এসেছে।

তবে তির্যক মন্তব্যও করেছেন কয়েকজন। কেউ কেউ সরাসরি জানতে চেয়েছেন হটাৎ এমন মোটা হওয়ার রহস্য। তাদের সকলের উদ্দেশ্যে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, আট মাসের ব্যবধানে দুটো সার্জারি দায়ী এই চেহারার জন্য। তবে শুভাকাঙ্খীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন তাকে ভালবাসার জন্য।

বডি শেমিং যে সমাজে এখনও প্রকট একথা বারবার প্রমাণিত হচ্ছে তারকাদের ক্ষেত্রে। অভিনেত্রী শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় কে মা হওয়ার পর নানান কটু কথা শুনতে হয়েছিল। অভিনেতা অভিনেত্রী মানেই চাবুকের মত ফিগার হতেই হবে এই ধারণা যেন কিছুতেই পাল্টাচ্ছেনা সমাজে। ঋতাভরী অবশ্য এইসব মানুষদের জন্য কেবল শুভ কামনাই জানিয়েছেন।

আরো পড়ুন -  মধুমিতার সুপার হট ফিগারের পিছনে হাত রয়েছে অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের, প্রকাশ্যে এল গোপন তথ্য!