নবজাতককে সামলাতে উড়ছে ঘুম, হাজারও ক্লান্তিতে হাসি মুখেই ছেলের দায়িত্ব পালন করছেন নুসরত

নবজাতককে সামলাতে উড়ছে ঘুম, হাজারও ক্লান্তিতে হাসি মুখেই ছেলের দায়িত্ব পালন করছেন নুসরত

দেখতে দেখতে আট দিন হয়ে গেল নুসরত মা হয়েছেন। ফুটফুটে রাজপুত্রের মা হলেন অভিনেত্রী তথা সাংসদ। ছেলেকে আদর করে নাম দিয়েছেন ঈশান। নুসরতের মা হওয়ার কথা প্রকাশ্যে আসতেই প্রশ্ন এসেছিল তাঁর শিশুর বাবা কে? অবশ্য হাজার বিতর্ক শুনেও নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থেকেছেন অভিনেত্রী। এমনকি হাসপাতালে সন্তান জন্মের সময় ফর্মে বাবার নাম উল্লেখ করেননি। নিজের পরিচয়ে ঈশানকে বড় করতে চান অভিনেত্রী। অবশেষে ঈশানের বাবার কথা উল্লেখ করেছেন।

বৃহস্পতিবার প্রথমবার নিজের সন্তানের বাবা-র কথা উল্লেখ করেছেন নুসরত জাহান। আর সেই নিয়ে নতুন হইচই উঠে এল সোশ্যাল মিডিয়ার পাতাতে। পুরোপুরি নাম না বললেও নেটিজেনরা মনে করছেন ধীরে ধীরে হয়ত ঈশানের বাবার পরিচয় সামনে আনবেন নুসরত। হ্যাঁ এমনই ইঙ্গিত মিলেছে অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট। দেখতে দেখতে নুসরত পুত্রের বয়স হয়ে গেল এক সপ্তাহ। ছেলের জন্মের পর প্রথম মাতৃত্বের স্বাদ চেটেপুটে নিচ্ছেন অভিনেত্রী।

পাশাপাশি ছেলেকে সামলাতে গিয়ে উড়েছে তাঁর রাতের ঘুম। ছেলের জন্মের পর থেকে কোনো নার্স নয় একা হাতে ছেলেকে সামলাচ্ছেন। এদিন সাস সকালে ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে নিজের একটি বুমেরাং ভিডিও পোস্ট করেন নুসরত। সেলফি মুডে তোলা সেই ভিডিয়ো-তে ঈশানের মা-কে পাওয়া গেল এক কালো ফ্রেমের চমশা চোখে। এইদিন অভিনেত্রীর পরনে স্লিভলেস সাদা-গোলাপি ড্রেস। নুসরতের চোখে-মুখে ক্লান্তির ছাপ থাকলেও ঠোঁটের কোণে ছিল এক ম্লান হাসি। এই ভিডিয়োর ক্যাপশনে নায়িকা লেখেছেন, ‘নিদ্রাহীন দিনরাত্রি’। ছেলের জন্য রাত জাগতে হলেও ছেলের বড় হওয়ার এই মুহূর্ত আনন্দের সাথে উপভোগ করছেন তিনি।

সূর্য মাথার ওপর উঠতেই নিজের ইনস্টাগ্রাম পেজে একটি ছবি পোস্ট করেন নুসরত। সেখানে সব ট্রোলারদের উদ্দেশে কড়া বার্তা দিলেন নতুন মা। সাদা-কালো টপে, কোনো মেকআপহীন লুকেই আয়নার সামনে বসে রয়েছেন নুসরত। চোখে ছিলনা কাজল, এলোমেলো চুল শুধু ঠোঁটে ছিল হালকা লিপস্টিক। এই ছবির ক্যাপশনে লেখা, ‘যাদের পরামর্শ নেবে না, তাদের কাছ থেকে সমালোচনাও শুনো না।’ হ্যাশট্যাগে লেখা, ‘নতুন ভূমিকা’ ‘নতুন মায়ের জীবনযাত্রা’, ‘নতুন মা’।

আর এই ছবির চিত্রঋণ হিসাবে নুসরত লিখেছেন, ‘ড্যাডি’। তবে কি নিজের বর্তমান সহবাস সঙ্গী যশ দাশগুপ্তকেই ঈশানের ড্যাডি বলে উল্লেখ করলেন নুসরত। এর উত্তর এখনো পাওয়া যায়নি। তবে নুসরতের অন্তঃসত্ত্বা পিরিয়ডে অভিনেত্রীর পাশে সবসময় ছিলেন যশ। এমনকি ঈশানের জন্মের পর আগামী দু-দিন নুসরতের সঙ্গে হাসপাতালেই ছিলেন তিনি। সোমবার নুসরতকে হাসপাতাল থেকে নিয়ে আসার সময়ে ঈশানকে নিজের কোলে নিয়ে গাড়িতে ওঠেন। নিজে ড্রাইভ করে নতুন মাম্মা আর ঈশানকে বাড়ি নিয়ে আসেন।