পরিবারের আপত্তি সত্বেও মনসুর আলিকে বিয়ে করেন ব্রাহ্মণ পরিবারের মেয়ে শর্মিলা ঠাকুর!

পরিবারের আপত্তি সত্বেও মনসুর আলিকে বিয়ে করেন ব্রাহ্মণ পরিবারের মেয়ে শর্মিলা ঠাকুর!


ক্রিকেট জগত এবং বলিউড জগত এই দুই জগতের সাথে আমরা খুব ভালোভাবে পরিচিত। এই দুই জগতের মধ্যে বহুদিন ধরেই মিলন সূত্র রয়েছে। এই দুই জগতের প্রেমের কথা নতুন করে আর বলতে হবে না। ক্রিকেটার মনসুর আলী খান পতৌদি ক্রিকেট জগতের একজন নামকরা নক্ষত্র। অন্যদিকে শর্মিলা ঠাকুর হলেন বলিউড জগতের স্টার। ১৯৬৫ সালে একটি ক্রিকেট ম্যাচে তাদের প্রথম আলাপ হয়। তারপর দীর্ঘ চার বছর তারা প্রেমের বন্ধনে আবদ্ধ ছিলেন।

আরো পড়ুন -  মাথায় সিঁদুর, গা ভর্তি গয়না, খোঁপায় জুঁইয়ের মালা দিয়ে নববধূর সাজে নেট দুনিয়ায় ধরা দিলেন মিঠাই, প্রশংসার ঝড় মিডিয়াযর পাতায়

ভারতীয় ক্রিকেট টিমের অধিনায়ক ছিলেন পতৌদি। সেই সময়ে বলিউড জগতে সবে পা রেখেছেন শর্মিলা ঠাকুর। ১৯৬৭ সালে ‘অ্যান ইভিনিং ইন প্যারিস’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন শর্মিলা ঠাকুর। এই ছবিতে তিনি বিকিনি পরেছিলেন। সেই কারণে তাকে নিয়ে বহু সমালোচনাও করা হয়েছিল। তবে সেই সময় তার প্রেমিক পতৌদি তার সাথে ছিলেন। এরপর ১৯৬৯ সালে তিনি আরাধনা ছবি করেছিলেন এবং এই ছবি থেকে তিনি প্রচুর জনপ্রিয়তা অর্জন করেন।

আরো পড়ুন -  শুধুই সফলতা নয় ‘দ্য দাদা অফ বলিউড’ বইতে ফুটে উঠবে মিঠুন চক্রবর্তীর ব্যর্থতার কাহিনী

প্রচুর পুরস্কারপ্রাপ্ত এই অভিনেত্রী বিয়ে করেন তাঁর চার বছরের প্রেমিক নবাব পতৌদিকে। তারা প্রমাণ করেন যে ভালোবাসা থাকলেই দুটো মানুষ একসাথে থাকতে পারে তার জন্য তাদের একই ধর্মের হতে লাগে না। তারা হিন্দু এবং ইসলাম দুই ধর্ম মেনেই বিয়ে করেন। এবং বিয়ের পর তার নাম হয় আয়েশা বেগম।

আরো পড়ুন -  সৌরভ গাঙ্গুলীর জন্য ছোটবেলায় স্কুল থেকে বহিষ্কৃত হচ্ছিলেন সৌরভ দাস, বহুদিন পর মুখ খুললেন অভিনেতা

তাদের জুটি খুবই জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল। এমনকি পতৌদি যখন মাঠে নামতেন খেলার জন্য তখন শর্মিলার গান বাজতো। তাদের তিন সন্তান হয়। সংসার সামলেও শর্মিলা ঠাকুর সিনেমা জগতে সময় দিতে ভোলেননি। তবে ২০১১ সালে পতৌদির মৃত্যুর পর তাকে আর রুপোলি পর্দায় দেখা যায়নি। চলতি বছরে ৭৬ বছর বয়সে পা রেখেছেন তিনি।