পুজোয় রাজ-পুত্র ইউভানকে বিশেষ উপহার পাঠালেন মমতা! জানেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে কি গিফট পেল সিম্বা

পুজোয় রাজ-পুত্র ইউভানকে বিশেষ উপহার পাঠালেন মমতা! জানেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে কি গিফট পেল সিম্বা


বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপূজা নিয়ে এই মুহূর্তে মেতে মানুষ। ঢাকের কাঠি বেজে উঠেছে। আর সেই কারণেই শেষ মুহূর্তের কেনাকাটা সারতে ব্যস্ত প্রত্যেকে। ইতিমধ্যেই মানুষ রাস্তায় নেমেছে ঠাকুর দেখার জন্য। প্যান্ডেলে প্যান্ডেলে মানুষের ভিড় চোখে পড়ছে। সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে তারকা সকলেই মেতে উঠেছে দুর্গাপূজা নিয়ে। ঠিক যেমন বাংলার জনপ্রিয় পরিচালক রাজ চক্রবর্তীও পুজো নিয়ে ব্যস্ত।

কিছুদিন আগেই রাজ-শুভশ্রী ছেলে ইউভানকে নিয়ে মালদ্বীপে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন। তবে যেখানেই থাকুক না কেন দুর্গাপূজো বলতে কলকাতা ছাড়া আর কিছুই বোঝেনা বাঙালি। আর ঠিক তাই পুজোর আগে কলকাতায় ফিরে এসেছেন রাজ-শুভশ্রী। গত বছর পুজোর ঠিক আগেই ইউভানের জন্ম হলেও, খুব ছোট থাকায় সেই রকম ভাবে প্যান্ডেল হোপিং করতে পারেনি রাজপুত্র। তবে এই বছর ইউভান এক বছরের বিগ বয় তাই বাবা মায়ের সাথে চুটিয়ে পুজো এনজয় করতে তৈরি সে। যদিও গত বারের মতো এবারেও করোনা আবহে পুজো। তাই বিধিনিষেধ মেনে উদযাপিত হবে আনন্দ উৎসব। তবে রাজ জানালেন, কোনো বারেই পুজোয় বাইরে তেমন বেরোন না তিনি। ছুটির কয়েকটা দিন পরিবারের সকলের সঙ্গেই কাটান। এবারেও নিজের আবাসনেই থাকবেন তিনি। অষ্টমীতে অঞ্জলি দেবেন সকলের সঙ্গে।

আরো পড়ুন -  Tithi Basu: পুজোর সময়ও বোল্ড লুকে হাজির তিথি, হলুদ বিকিনি মুডে ‘মা’ ধারাবাহিকের ঝিলিকের ছবি ভাইরাল

রাজ জানিয়েছেন প্রত্যেক বছরের মতন তার পছন্দের কথা মাথায় রেখে নতুন পাঞ্জাবি উপহার দিয়েছেন শুভশ্রী। সেই পাঞ্জাবি পড়েই অষ্টমীর অঞ্জলি সারেন পরিচালক। তবে রাজের কাছ থেকে নাকি কিছুই নিতে চাননা শুভশ্রী। তাই নিজেই পছন্দ করে বউয়ের জন্য শাড়ি কিনে দেন রাজ। ইউভানের জন্য নাকি ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি জামা কেনা হয়ে গেছে। বিশেষ করে এই বছর খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইউভানকে একটি পুজোর জামা উপহার হিসাবে পাঠিয়েছেন।

আরো পড়ুন -  একবারের জন্য শেষ দেখা দেখতে চাই, কার উদ্দেশ্যে কাতর আর্তি শতাব্দী রায়ের

পুজোর প্ল্যানিং হিসেবে সবার আগেই রাজ এগিয়ে রাখছেন পূজার খাওয়া-দাওয়াকে, কারণ সারা বছর কড়া নিয়মে ডায়েটিং চললেও পুজোর এই কটাদিন মেলে ছাড় আর তাই এই দিনগুলিতে রাজের সকাল শুরু হয় ফুলকো লুচি ছোলার ডাল দিয়ে, আর নবমীতে মাংস ম্যান্ডিটরি। তবে গত পুজোর থেকে এই বারের পুজোটা রাজের কাছে একটু আলাদা কারণ এবার তার মাথায় দায়িত্ব বেশি। তিনি এখন ব্যারাকপুরের বিধায়কও। তাই সমস্ত উৎসবে সেখানে উপস্থিত থাকতে হয় রাজকে। পুজোর সময় কটা দিনও নিজের কেন্দ্রের মানুষের সাথে সময় কাটাবেন বলে জানিয়েছেন রাজ।

আরো পড়ুন -  পরিবারের সঙ্গে বিবাদ, নুসরতের সঙ্গে সম্পর্কের কারনে ‘কুলাঙ্গার' তকমা পেলেন অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত !