বনগাঁ থেকে মুম্বাই, সাফল্যের শিখরে বাংলার ‘মিষ্টি মেয়ে’ অরুনিতা! রইল তার আসল পরিচয়

বনগাঁ থেকে মুম্বাই, সাফল্যের শিখরে বাংলার 'মিষ্টি মেয়ে' অরুনিতা! রইল তার আসল পরিচয়


কলকাতা থেকে একটু দূরে মফস্বলের মেয়ে অরুনিতা।এখন ইন্ডিয়ান আইডলের দৌলতে এখন এই নামটা সকলের মুখে মুখে ফিরছে। মায়ের হাত ধরেই মেয়েটার বড় হয়ে ওঠা, অর্থাৎ গানের জগতে প্রবেশ। নিজের অপূর্ণ ইচ্ছেকে মেয়ের মধ্যে রোপণ করেছিলেন মা। তারপর থেকেই মাত্র ৪ বছর বয়স থেকে গানে হাতেখড়ি মায়ের হাতেই। অরুনিতার সুরেলা কন্ঠের খোঁজ পেয়ে পুনের এক বিখ্যাত সঙ্গীত বিশারদ অরুনিতা কে গানের তালিম দিতে আগ্রহী হন। তার বিশ্বাস ছিল এ মেয়ে একদিন অনেক দূর যাবে।

জি বাংলার ছোটদের গানের রিয়েলিটি শো ‘সারেগামাপা লিল চ্যাম্প ‘ এ অংশগ্রহণ করেছিলেন অরুনিতা। প্রথম পুরস্কার গিয়েছিল অরুনিতার ঝুলিতে। এরপর তার সফর শুরু হয় মুম্বাই তে। সেখানে জুনিয়র ইন্ডিয়ান আইডল এ পার্টিসিপেন্ট ছিলেন অরুনিতা। আর সেবারেও বাংলার মুখে হাসি ফুটিয়ে জয় আসে মিষ্টি মেয়েটার।মেলে বিচারক মোনালি ঠাকুরের কাছে গান শেখার সুবর্ণ সুযোগ।

এখন অরুনিতা ১৮ বছরের সাবালিকা।গত ৮ মাস ধরে মেয়েটার মায়াবী কণ্ঠ শুনেছে সারা ভারতবর্ষ। ইন্ডিয়ান আইডল সিজন ৮ তাকে আরো মানুষের কাছে এনে দেয়। সঙ্গীতপ্রেমী মানুষের ঘরে ঘরে একটাই নাম অরুনিতা। ইতিমধ্যে দেশ বিদেশে একাধিক শো করে ফেলেছে অরু।

যদিও এবারের প্রথম শিরোপা জোটেনি এই বঙ্গ প্রতিভার। কিন্তু আশা থেকে নেহা সকলের আশীর্বাদ নিয়ে অনেক দূরে এগিয়ে যাচ্ছে অরুনিতা।বাপ্পী লাহিড়ী, হিমেশ রেষমিয়ার মত সঙ্গীত পরিচালক দের কাছ থেকে গান গাওয়ার কন্ট্রাক পেয়েছে অরুনিতা কাঞ্জিলাল। মায়ের মুখ উজ্জ্বল করে সেদিনের অরুনিতা এখন দেশের প্লে ব্যাক সিঙ্গার হওয়ার পথে।

আরো পড়ুন -  জনপ্রিয় অভিনেতা হলেও ছিল না অহংকার, হাসিমুখে বেলুন বিক্রেতাদের সঙ্গে ছবি তুলেছিলেন সুশান্ত