ভদ্র ঘরের ছেলেরা আসে না অভিনয়ে! নাসিরুদ্দিনকে যে কারনে এই কথা বলেছিলেন দিলীপ কুমার

ভদ্র ঘরের ছেলেরা আসে না অভিনয়ে! নাসিরুদ্দিনকে যে কারনে এই কথা বলেছিলেন দিলীপ কুমার

মাত্র কয়েকদিন আগেই অবসান ঘটেছে এক স্বর্ণযুগের। যে স্বর্ণযুগে বিরাজ করতেন অভিনেতা দিলীপ কুমার। কিংবদন্তি এই বলি নায়কের মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর। সেঞ্চুরির দোরগোড়ায় এসেও জীবনযুদ্ধে হেরে যেতে হলো তাকে।

ভদ্র ঘরের ছেলেরা আসে না অভিনয়ে! নাসিরুদ্দিনকে যে কারনে এই কথা বলেছিলেন দিলীপ কুমার

জীবনের শেষ কদিন তিনি কাটিয়েছেন মুম্বাইয়ের হিন্দুজা হসপিটালে। তবে কাকতালীয়ভাবে সেই হসপিটালে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি ছিলেন অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ। হসপিটালে ভর্তি থাকাকালীন দিলীপ কুমারের স্ত্রী সায়রা বানুর সাথে তাঁর কথা হতো। অভিনেত্রী সায়রা বানু তাকে প্রত্যেকদিনই দেখতে আসতেন। সাথে অভিনেতার খোঁজ নিতেন। অভিনেত্রী একদিন তার মাথায় হাত রেখে বলেছিলেন দিলীপ সাহাব তাঁর খোঁজ নিয়েছেন। এই শুনে অভিনেতা খুবই আনন্দ অনুভব করেছিলেন। সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমে নাসিরুদ্দিন শাহ বলেছিলেন “সায়রা বানুর কথা শুনে আমি মুগ্ধ হয়েছিলাম। আমিও ওঁর সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত আমি যেদিন এলাম, সেদিন তিনিও চিরকালের জন্য চলে গেলেন।”

ভদ্র ঘরের ছেলেরা আসে না অভিনয়ে! নাসিরুদ্দিনকে যে কারনে এই কথা বলেছিলেন দিলীপ কুমার

তবে এ প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ স্মৃতির পাতায় রোমন্থন করতে শুরু করেন। বেশ কয়েক পাতা উল্টে অভিনেতার মনে পড়ে ট্রাজেডি কিং তাকে বলেছিলেন “আমার মনে হয় তোমার এখন ফিরে যাওয়া উচিৎ এবং পড়াশোনা করাই ভালো। আসলে ভালো পরিবারের ছেলেমেয়েদের অভিনয় করতে আসা উচিত নয়।”

ভদ্র ঘরের ছেলেরা আসে না অভিনয়ে! নাসিরুদ্দিনকে যে কারনে এই কথা বলেছিলেন দিলীপ কুমার

তবে একথা শুনে অভিনেতার মনে এসে ভীড় করেছিল অনেক প্রশ্নের দল। কিন্তু অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ দিলীপ কুমারকে এতটাই সম্মান করতেন এবং এতটাই ভয় পেতেন যে তার এই কথার পাল্টা জবাব দিতে তিনি সেদিন পারেননি। নাসিরুদ্দিনের কথায় “আমার সেই সাহসই ছিলনা।”

ভদ্র ঘরের ছেলেরা আসে না অভিনয়ে! নাসিরুদ্দিনকে যে কারনে এই কথা বলেছিলেন দিলীপ কুমার

বলিউডের অন্যান্য অভিনেতারাও কিংবদন্তি অভিনেতা দিলীপ কুমারকে খুব ভয় পেতেন এবং শ্রদ্ধা করতেন। একারণেই দিলীপ কুমার সবার উপরে অবস্থান করতেন।

ভদ্র ঘরের ছেলেরা আসে না অভিনয়ে! নাসিরুদ্দিনকে যে কারনে এই কথা বলেছিলেন দিলীপ কুমার

একবার অভিনেতা ‘ট্রাজেডি কিং’ এর সাথে অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছিলেন। তবে সেই সময়ে নাসিরুদ্দিন শাহ তার কাছে শুধুমাত্র সকালে উঠে শুভেচ্ছাবার্তা জানাতে যেতেন। এ প্রসঙ্গে নাসিরুদ্দিন শাহ বলেছেন “জীবনে অভিনয় করার সময় তখনই প্রথম নার্ভাস হয়েছি। খুব সকালে ওনাকে শুভেচ্ছা জানানো ছাড়া বেশির ভাগ সময় তার কাছে যেতে ভয় পেতাম আমি।” দুই অভিনেতা একসাথে অভিনয় করেছিলেন ‘কর্মা’ ছবিতে।