Aindrila Sharma: ‘দুষ্টু মা’-কে হারালেন ঐন্দ্রিলা, কাছের মানুষকে হারিয়ে আবেগঘন পোস্ট নায়িকার

Aindrila Sharma: 'দুষ্টু মা'-কে হারালেন ঐন্দ্রিলা, কাছের মানুষকে হারিয়ে আবেগঘন পোস্ট নায়িকার

সবেমাত্র শেষ হয়েছে দুর্গোৎসব। কিন্তু পুজোর রেশ এখনও মিলিয়ে যায়নি। তবু তার মধ্যেই ঐন্দ্রিলা শর্মা (Aindrila Sharma)-র জীবনে নেমে এল অন্ধকার। তাঁকে চিরতরে ছেড়ে চলে গেলেন তাঁর পরমাত্মীয় দুষ্টু মা।

এভাবে তাঁর চলে যাওয়ার খবর বিশ্বাস করতে পারছেন না ঐন্দ্রিলা। নিজের সঙ্গে দুষ্টু মায়ের একটি ছবি ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করে ঐন্দ্রিলা লিখেছেন, তিনি খুব কাছের মানুষকে হারিয়েছেন। দুষ্টু মা সবসময়ই বলতেন, তিনি ঐন্দ্রিলার কাছ থেকে অনুপ্রেরণা পান, শক্তি পান। ঐন্দ্রিলা যখন দিল্লী থেকে প্রথম কেমো নিয়ে ফিরেছিলেন, তখন দুষ্টু মা তাঁকে বলেছিলেন, তাঁদের জীবন অত সুখের না হলেও তাঁরা লড়াই করে সবকিছুই ছিনিয়ে নেবেন। কিন্তু দুষ্টু মায়ের লড়াইটা আর শেষ হল না। তিনি ঐন্দ্রিলার চোখে দেখা সাহসী মানুষ যিনি সবসময় হাসিমুখে লড়ে গিয়েছেন। নিজের কষ্টগুলি ঐন্দ্রিলার সঙ্গে শেয়ার করতেন দুষ্টু মা, বলতেন, এগুলো আর কেউ বুঝবেন না। ঐন্দ্রিলাকে বলেছিলেন, একদিন শুটিং দেখতে যাবেন। কিন্তু তা আর হল না।

ঐন্দ্রিলা এখন বিশ্বাস করতে পারছেন না, দুষ্টুমার নাম্বারে কল করলে তিনি আর ফোন ধরবেন না। ঐন্দ্রিলা শুনতে পাবেন না সেই চেনা গলা। আর কোনোদিন তিনি দেখতে পাবেন না দুষ্টু মায়ের হাসিখুশি চেহারা। কিন্তু তিনি ঐন্দ্রিলার হৃদয়ে চিরকাল বেঁচে থাকবেন। চিরকাল তাঁকে ভালোবাসবেন ঐন্দ্রিলা। ঐন্দ্রিলার পরিচিত একাধিক মানুষ তাঁর কমেন্ট বক্সে লিখেছেন, তাঁরাও বিশ্বাস করতে পারছেন না দুষ্টুমায়ের এভাবে চলে যাওয়া। কিন্তু তবু লড়াই জারি থাকবে।

ঐন্দ্রিলার অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে। এরপর শুরু হয়েছে কেমোথেরাপির দ্বিতীয় সাইকেল। 6 ই অক্টোবর কেমো নেওয়ার পর পুজোর সময় এক রাতে ঐন্দ্রিলাকে ঠাকুর দেখাতে নিয়ে গিয়েছিলেন সব‍্যসাচী (Sabyasachi Chowdhury)। কিন্তু জনজোয়ার দেখে ঐন্দ্রিলার ভালো লাগেনি। তিনি বাড়ি ফিরতে চেয়েছিলেন। বাড়ি ফেরার পথে এক অনামী মন্ডপে দাঁড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। সাবেকি সাজের মা দুর্গাকে তাঁদের দুজনের মনে হয়েছিল আটপৌরে মায়ের মতন।