ব্লাউজ ছাড়াই শাড়িতে লাস্যময়ী স্বস্তিকা, অভিনেত্রীর সৌন্দর্যে মুগ্ধ নেটিজেনরা

ব্লাউজ ছাড়াই শাড়িতে লাস্যময়ী স্বস্তিকা, অভিনেত্রীর সৌন্দর্যে মুগ্ধ নেটিজেনরা


আমাদের দেশের মেয়েদের কাছে শাড়ি ভীষণ আবেগের ও ঐতিহ্যের বিষয়। ছোটবেলায় বাংলা ছড়ার গল্পের বইতে মেয়েদের শাড়ি পড়তে দেখা যেত। ওরা শাড়ি কুচি দিয়ে বা একের পর এক প্লিট দিয়ে পড়ত না। গামছার মতন কোমরের নিচে পেঁচিয়ে, বুকে জড়িয়ে হয় ঘোমটা দিত, নয়তো ওই আঁচল ফের কোমরে বেধে নিত। পেটিকোট বা ব্লাউজ পড়ার চল তখনও শুরু হয়নি। কিন্তু, কোথাও এতুতুকু অশ্লীলতা ছিল না, বরং দিদিমা ঠাকুমাদের অমন ভাবে শাড়ি পড়তে দেখলে পুরোনো আবেগ জেগে ওঠে। এবারে সেই সাজে সজ্জিত হলেন টলিউডের মোস্ট গ্ল্যামারাস, অ্যাক্টিভ লেডি স্বস্তিকা মুখার্জী।

আরো পড়ুন -  মুম্বাইয়ে পাড়ি দিলেন ‘কে আপন কে পর’-এর কোয়েল, কাজ করছেন বলিউডে!

আসলে স্বস্তিকা মানেই চূড়ান্ত ফ্যাশন। তিনি দেখিয়ে দিয়েছেন ছোট ছোট ছেলেদের কাটিং চুল নিয়েও শাড়ি ক্যারি করা যায় স্টাইলের সঙ্গে। যেকোনো পোশাকে তিনি স্বাচ্ছন্দ্য। যেমন অভিনয়ে সাবলীল ঠিক ততটাই ফ্যাশন সংক্রান্ত বিষয়ে তিনি সাবলীল ও সহজ।

আজও স্বস্তিকার ফ্যাশন তরুণ তরুণীদের মনে আগুন জ্বালায়। যখন যেই রূপে ধরা দেন ক্যামেরার সামনে তাতেই প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে ওঠেন অনুরাগীরা। সম্প্রতি স্বস্তিকা একটি ছবি শেয়ার করেছেন তার ভক্তদের জন্য। ছবিতে তাঁর পরনে একটি সবুজ শাড়ি। ওই শাড়ির পাড়ে রুপোলি জরি দিয়ে ঘন কাজ করা হয়েছে। মাঝে ছোট ছোট মোটিফ। বিশেষ ব্যাপার হল ব্লাউজ ছাড়াই শাড়ি পড়ে তাক লাগিয়েছেন তিনি। তার গলায় মাকড়ি হাতে বাজু। কপালে বড় লাল টিপ। মাথার চুল এলো খোঁপা করে বেঁধে রেখেছেন। সত্যি, ৪০ পেরোলেও স্বস্তিকার এতটাই সুন্দর যে চোখ সরানো যায় না। তিনি যে এতটাই সুন্দরী হয়ে উঠতে পারেন তা কল্পনার বাইরে।

শুধু রূপ নয়, গুণেও অনেক কলা দেখিয়েছেন তিনি। এখন ওয়েব সিরিজ মানেই স্বস্তিকার একের পর এক চমকপ্রদ অভিনয়। ‘মোহা মায়া’ হোক বা ‘পাতাললোক’ স্বস্তিকা যেন একাই একশো। জানা যাচ্ছে, সম্প্রতি তিনি অনুষ্কা শর্মা ও কারনেশ শর্মার প্রযোজনা সংস্থা ‘ক্লিন স্লেট ফিল্মজ’-এর সঙ্গে কাজ করেছেন। এছাড়াও, নেটফ্লিক্স অরিজিনাল ফিল্ম ‘কোয়ালা’য় দেখা যাবে এই বাঙালি অভিনেত্রীকে।