বেশি সম্পত্তির লোভে অভিষেককে ছেড়ে ব্যবসায়ীকে বিয়ে! কিন্তু তবুও সুখ পেল না করিশ্মা কাপুর

বেশি সম্পত্তির লোভে অভিষেককে ছেড়ে ব্যবসায়ীকে বিয়ে! কিন্তু তবুও সুখ পেল না করিশ্মা কাপুর

শুধু সিনেমার পর্দায় নয় বাস্তব জীবনেও তারকাদের জীবনে এমন ঘটনা ঘটে যা ছবির কাহিনীকে হার মানায়। যেমনটা ঘটেছিল করিশমা কাপুর আর অভিষেক বচ্চনের বেলাতে।বিয়ের কথা পাকাপাকি হয়ে আশির্বাদ পর্যন্তই গড়ালেও থমকে যায় সব। যার নেপথ্যে ছিলেন করিশমার মা ববিতা কাপুর। শোনা যায় অর্থের জন্যই নাকি ভেঙে গিয়েছিল এই সম্পর্ক।

৯০ এর দশকে একটার পর একটা হিট ছবি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন করিশমা। অভিষেক তার অভিনয় জীবন শুরু করলেও পরিচিতি পাননি তখনও। এদিকে লোলো আর জুনিয়র বচ্চন মন দিয়েছেন একে অপরকে।কাপুর বংশের সঙ্গে বচ্চন পরিবারের একটা ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে সেই বন্ধন আরো মজবুত করতে অভিষেক ও করিশমার চার হাত এক করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।এমনকি প্রকাশ্যে রণধীর কন্যাকে নিজের পুত্রবধূ বলেন জয়া।

দুজনের বিয়ের কথাবার্তা প্রায় শেষের মুখে এমন সময় হবু জামাই এর ক্যারিয়ার নিয়ে খানিক বিব্রত বোধ করেন ববিতা। তিনি অমিতাভ কে সরাসরি বলেন তার সম্পত্তির অর্ধেক ভাগ ছেলে ও বৌমার নামে লিখে দিতে। এই শর্তে গররাজি হয়ে বিয়ে নাকচ করে দেন বিগ বি ও তার পরিবার। তারা জানিয়ে দেন এই অর্থলোভী পরিবারের সঙ্গে কোন বৈবাহিক সম্পর্ক নয়। আর এর সঙ্গেই ভেঙে যায় করিশমা ও অভিষেকের ভালোবাসা। এর কিছুদিনের মধ্যেই ব্যাবসায়ী সঞ্জয় কাপুরকে বিয়ে করেন অভিনেত্রী, আর অভিষেক বচ্চনের জীবনসঙ্গিনী হন বিশ্ব সুন্দরী ঐশ্বর্য। অ্যাশ, আরাধ্যাকে নিয়ে সুখের সংসার অভিষেকের। কিন্তু টেকেনি করিশমার বিয়ে।

নেটিজেনরা বলেন শুধু অর্থের লোভেই নিজের মেয়ের জীবন নষ্ট করেছেন ববিতা। বিয়ের পরে স্বামীর কাছ থেকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়ে দুই সন্তানকে নিয়ে ফিরে আসেন লোলো। যদিও অনেকেই মনে করেন ববিতা দুই মেয়েকে একা হাতে মানুষ করেছেন তাই মা হিসেবে এটুকু প্রত্যাশা তিনি করতেই পারতেন।